• ঢাকা
  • রবিবার, ২৩ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ; ০৫ ফেরুয়ারী, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

Advertise your products here

চীন তাইওয়ান বিষয়ে সামরিক মহড়ার মাধ্যমে ‘দায়িত্বজ্ঞানহীন' আচরণ করছে - আমেরিকা

আন্তর্জাতিক নিউজ ডেস্ক
জয় বাংলা ২৪ ; প্রকাশিত: শুক্রবার, ০৫ আগষ্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ০৩:৩১ পিএম
চীন,  তাইওয়ান,  সামরিক মহড়া, আমেরিকা , যুদ্ধ

মার্কিনীদের ৩য় ক্ষমতাধর ব্যাক্তি স্পিকার ন্যান্সি পেলোসির তাওয়ান সফরকে কেন্দ্র করে চীন তাইওয়ান এর মধ্যে সামরিক উত্তেজনা বৃদ্ধি চরম রূপ নিতে চলেছে বলে অভিমত বিশেষজ্ঞদের । সেই সূত্র ধরে চীন সামরিক মহড়া শুরু করে দিয়েছে। 

 

চীনের সামরিক মহড়ার আওতায় তাইওয়ান ও জাপানের কাছে ক্ষেপণাস্ত্র এসে পড়ায় গোটা অঞ্চলে উত্তেজনা দেখা যাচ্ছে৷ মার্কিন নেতা পেলোসির তাইওয়ান সফরের জের ধরে চীন শক্তি প্রদর্শন করছে৷ মার্কিন সংসদের নিম্ন কক্ষের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসির তাইওয়ান সফরের পর থেকেই চীন তাইওয়ানের চারিদিকে সামরিক মহড়া শুরু করে দিয়েছে৷ 

 

তাইওয়ানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে,  কমপক্ষে চারটি ক্ষেপণাস্ত্র তাইওয়ানের রাজধানী তাইপের উপর দিয়ে উড়িয়ে সমুদ্রে নিক্ষেপ করেছে চীনা বাহিনী৷ তবে সেগুলি বায়ুমণ্ডলের উপর দিয়ে উড়ে যাওয়ায় সরাসরি কোনো হুমকি সৃষ্টি করেনি ।  চীন এখনো এ বিষয়ে মন্তব্য প্রদান করেনি৷ 


বৃহস্পতিবার থেকে চলে আসা এই মহড়ার ফলে তাইওয়ানে চরম অস্বস্তি সৃষ্টি হচ্ছে৷ চীন রোববার দুপুর পর্যন্ত এই মহড়া চালাবে বলে জানিয়েছে৷ তাইওয়ান বলেছে,  এত কাছে কোনো সামরিক মহড়া চীন ইতিপূর্বে চালায় নি । 

তাইওয়ানের প্রধানমন্ত্রী সু সেং-চাং শুক্রবার সাংবাদিকদের বলেন, চীন নির্বিচারে সামরিক মহ়ড়া চালিয়ে বিশ্বের সবচেয়ে ব্যস্ত জলপথ ধ্বংস করে দিচ্ছে৷ তিনি গণপ্রজাতন্ত্রী চীনকে ‘দুষ্ট প্রতিবেশী' হিসেবে বর্ণনা করেন৷ সু বলেন, একাধিক প্রতিবেশী দেশ ও গোটা বিশ্ব চীনের আচরণের নিন্দা করছে৷ তাইওয়ানের প্রেসিডেন্ট সাই ইং-ওয়েন বলেন, তার দেশ সংঘাত উসকে দেবে না, শুধু সার্বভৌমত্ব ও জাতীয় নিরাপত্তা জোরালোভাবে রক্ষা করবে৷

 

জাপানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, যে চীনের নয়টি ক্ষেপণাস্ত্রের মধ্যে পাঁচটি সে দেশের বিশেষ অর্থনৈতিক এলাকার উপর পড়েছে৷ ফলে সে দেশ কূটনৈতিক পথে চীনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়েছে৷ উল্লেখ্য, জাপানের দক্ষিণের দ্বীপগুলি তাইওয়ানের অত্যন্ত কাছে অবস্থিত৷ পেলোসির সফরের সময়ে জাপানের প্রধানমন্ত্রী ফুমিও কিশিদা বলেন, চীনের ব্যালিস্টিক মিসাইল জাপানের জলসীমার কাছে পড়ায় জাপানের জাতীয় নিরাপত্তা হুমকির মুখে পড়েছে৷

 

চীন অবশ্য তাইওয়ানের সঙ্গে সম্পর্ককে অভ্যন্তরীণ বিষয় হিসেবে বিবেচনা করে এবং এ বিষয়ে অন্য দেশের হস্তক্ষেপের বিরোধিতা করে৷  চীনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক মুখপাত্র বর্তমান উত্তেজনার জন্য তাইওয়ান ও আমেরিকাকে দায়ী করে বলেন, এই দুই দেশের যোগসাজশের কারণে তাইওয়ান বিপর্যয়ের পথে এগোচ্ছে৷

হোয়াইট হাউসের পক্ষ থেকে চীনের সামরিক মহড়াকে ‘দায়িত্বজ্ঞানহীন' আচরণ হিসেবে বর্ণনা করা হয়েছে৷ তবে আগামী কয়েক দিনেও চীন এমন মনোভাব দেখিয়ে যাবে বলে ওয়াশিংটন মনে করছে৷

 

 

সূত্রঃ ডি ডব্লিউ 

 


 

জয় বাংলা ২৪ / নিউজ ডেস্ক

আর্ন্তজাতিক বিভাগের জনপ্রিয় সংবাদ